Menu

কিংবদন্তি কী? কিংবদন্তির বৈশিষ্ট্য উলেখ করে ইতিহাসের ক্ষেত্রে এর গুরুত্ব লেখ | দ্বাদশ শ্রেণির ইতিহাস অতীত স্মরণ | Class XII History Descriptive

Last Update : December 10, 2022

কিংবদন্তি কী? কিংবদন্তির বৈশিষ্ট্য উলেখ করে ইতিহাসের ক্ষেত্রে এর গুরুত্ব লেখ | দ্বাদশ শ্রেণির ইতিহাস অতীত স্মরণ | Class XII History Descriptive

কিংবদন্তি কী—পাশ্চাত্য জগতে প্রচলিত লেজেন্ড বাংলায় ‘কিংবদন্তি’ রূপে পরিচিত। কিংবদন্তি কাহিনিগুলিতে যেসব ঘটনার বিবরণ দেওয়া হয় বা যেসব চরিত্রের উল্লেখ করা হয়, অতীতে একসময় সেসব ঘটনা ঘটেছিল বা সেসব চরিত্র জীবন্ত ছিল বলে লোকসমাজ বিশ্বাস করে থাকে। অতীত কাল থেকে লোকসমাজে প্রচলিত কিংবদন্তি কাহিনিগুলিতে সামান্য পরিমাণে হলেও অতীতের বহু ঐতিহাসিক তথ্য ও সূত্র থাকে।

কিংবদন্তির বৈশিষ্ট্য

বিষয়বস্তু—কিংবদন্তির বিষয়বস্তু বিভিন্ন ধরনের হতে পারে। ইতিহাস-নির্ভর কাহিনি, প্রেম-বিরহ সম্পর্কিত কাহিনি, ভূত-প্রেতের কাহিনি ইত্যাদির সঙ্গে যুক্ত ব্যক্তিদের ঘটনা কিংবদন্তির বিষয়বস্তু হয়ে থাকে।

আরো পড়ুন :  জাদুঘর বলতে কী বোঝ? জাদুঘরের উদ্দেশ্য, কার্যাবলি ও গুরুত্ব লেখ | দ্বাদশ শ্রেণির ইতিহাস অতীত স্মরণ | Class XII History Descriptive

চরিত্রের অস্তিত্ব—একথা সাধারণভাবে স্বীকার করে নেওয়া হয় যে, কিংবদন্তির চরিত্রগুলি অতীতকালে একসময় জীবিত ছিলেন। রামচন্দ্র, শ্রীকৃষ্ণ, হারকিউলিস, প্রমিথিউস প্রমুখ কিংবদন্তি চরিত্রের অস্তিত্ব সম্পর্কে ঐতিহাসিকগণ প্রায় নিশ্চিত। তাঁরা যে, সাধারণ মানুষের চেয়ে বেশি ক্ষমতাবান, সাহসী, মানবদরদী ছিলেন সেকথাও স্বীকার করতে বাধা নেই।

অতিরঞ্জন—কিংবদন্তীর ঘটনায় প্রায়শই অতিরঞ্জন লক্ষ করা যায়। অনেক কিংবদন্তিতে ভিত্তিহীন ঘটনার অস্তিত্ব লক্ষ করা যায়।

কয়েকটি কিংবদন্তি—রামচন্দ্র (রামায়ণ কাব্য), শ্রীকৃষ্ণ (মহাভারত), হারকিউলিস (গ্রিক পুরাণ), গোপাল ভাঁড় প্রভৃতি কিংবদন্তির উল্লেখযোগ্য চরিত্র। এইসব চরিত্রগুলিকে ঘিরে রয়েছে নানা কল্পকথা, কাহিনি।

কিংবদন্তির গুরুত্ব

মৌখিক ইতিহাসের উপাদান হিসেবে কিংবদন্তিগুলির গুরুত্বগুলি হল

ঐতিহাসিক তথ্যের সূত্র—বিভিন্ন কিংবদন্তির ওপর ভিত্তি করে বিভিন্ন ঐতিহাসিক ঘটনার সত্যতা নিরূপণ করা সম্ভব হয়। প্রচলিত কিংবদন্তি রয়েছে এমন স্থানে খনন করে প্রাচীন বৌদ্ধ বিহারের অস্তিত্ব পাওয়া গেছে।

আরো পড়ুন :  অতীতকে স্মরণ করার ক্ষেত্রে মিথ এবং স্মৃতিকথার ভূমিকা আলোচনা করো | দ্বাদশ শ্রেণির ইতিহাস অতীত স্মরণ

আনন্দদান—কিংবদন্তির ঘটনাগুলি অতীত কাল থেকে মানুষের মুখে মুখে প্রচারিত হয়ে লোকসমাজকে আনন্দ দিয়ে যাচ্ছে। কিংবদন্তিতে আনন্দদায়ক উপাদান আছে বলেই এগুলি বংশপরম্পরায় বর্তমানকালে এসে পৌঁছেছে।

শিক্ষাদান—বর্তমানকালের মানুষকে কিংবদন্তির ঘটনাগুলি অতীতের নৈতিকতা, বীরত্ব প্রভৃতি বিষয়ে তথ্য সরবরাহ করে। এগুলি থেকে বর্তমানকালের মানুষ নৈতিকতার শিক্ষা লাভ করতে পারে।

ঐতিহাসিক ভিত্তি—বহু ক্ষেত্রেই কিংবদন্তির কাহিনিগুলির বাস্তব ভিত্তি আছে। বাংলার কিংবদন্তি চরিত্র রঘু ডাকাতের কালী পুজোর ভিত্তিতে আজও একটি কালী মন্দিরকে চিহ্নিত করা হয়। তাই কিংবদন্তি থেকে ঐতিহাসিক উপাদান পাওয়া সম্ভব।

সমালোচনা

আরো পড়ুন :  পেশাদারি ইতিহাস কী | অপেশাদারি ইতিহাসের সঙ্গে পেশাদারি ইতিহাসের পার্থক্য

কিংবদন্তির কাহিনিগুলির বিভিন্ন গুরুত্ব থাকলেও এর কিছু ত্রুটি-বিচ্যুতি রয়েছে। প্রজন্মের পর প্রজন্ম ধরে মুখে মুখে প্রবাহিত হওয়ার ফলে ইতিহাসের অতীত ঘটনাবলির সঙ্গে বহু কাল্পনিক ঘটনা এতে যুক্ত হয়ে পড়ে।

——————————————–
শ্রেণিবিষয়
দ্বাদশ শ্রেণিসমস্ত বিষয়
একাদশ শ্রেণিসমস্ত বিষয়
দশম শ্রেণিসমস্ত বিষয়
নবম শ্রেণিসমস্ত বিষয়
অষ্টম শ্রেণিসমস্ত বিষয়
সপ্তম শ্রেণিসমস্ত বিষয়
ষষ্ঠ শ্রেণিসমস্ত বিষয়
পঞ্চম শ্রেণিসমস্ত বিষয়

————————————————

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!